Philips Trimmer

দাড়ি ট্রিমিং করার সময় ৬টি ব্যাপার খেয়াল রাখবেন Leave a comment

আবারও দেশে করোনা করোনাভাইরাসের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। করোনার ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রমনের জন্য এখন আবার দেশ লকডাউনের দিকে হাটছে। ঘরবন্দি জীবনে ছেলেদের জন্য চুল ও দাঁড়ি কাটার বিষয়টি বেশ ভালোই ভোগাচ্ছে। লকডাউনে সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেককেই দেখা গেছে মাথার সব চুল হেয়ার ক্লিপার ব্যবহার করে ফেলে দিতে। অনেকেই চুল-দাঁড়ি পরিপাটি করে কাটার জন্য হয়তো হেয়ার ক্লিপার/ট্রিমার কিনেছেন-ও। কিন্তু বুঝে উঠতে পারছেন না, ঠিক কিভাবে সেটি ব্যবহার করে ভালোভাবে ট্রিম করে নেয়া যায়।

যেভাবে দাড়ি ট্রিম করবেন 

লক্ষ্য করুন, লাইন করার জন্য এবং শেপ-এ নিয়ে আসার জন্য আপনার প্রথমেই ক্লিপার ব্যবহার না করে সরাসরি ট্রিমার ব্যবহার করতে হবে।

১- সঠিক ক্লিপার বেছে নেয়া-

দাঁড়ি শেপ করার জন্য লেন্থ কতোটুকু হবে, সেজন্যে সবচেয়ে জরুরি হচ্ছে সঠিক ক্লিপার-টি বেছে নেয়া। ক্লিপার সাধারণত ৩- ৯ মি.মি. এর মধ্যে বিভিন্ন মাপের হয়ে থাকে। ঠিক কতোটুকু দাঁড়ি রাখবেন তা বিবেচনা করে সঠিক ক্লিপার-টি বেছে নিন।

২- গলার নিচের শেপ ঠিক করা-

দাঁড়ি ট্রিমিং-এর প্রথমেই গলার নিচে থাকা দাঁড়ির শেপ ঠিক করে নিন। এসময় খেয়াল রাখুন-

সবসময় নিচের থেকে শুরু করুন।
গলার ‘অ্যাডামস অ্যাপল’-এর একটু উপর প্রথমেই একটি মার্ক করে নিন।
এরপর এই মার্ক বজায় রেখে নিচের দিকে থেকে একদম বামে এবং ডানে পর্যন্ত কার্ভ লাইনের মতো করে নিন। এরপর নিচের সব দাঁড়ি ট্রিম করে ফেলুন।
এই পদ্ধতিটি ঠিকভাবে করার জন্য ট্রিমার-টি ঠিক করে ধরা জরুরি। ট্রিমার-এর ফ্ল্যাট সার্ফেস-টি স্কিনের সাথে লাগিয়ে নিয়ে নিচ থেকে উপরের দিকে টেনে ট্রিম করতে হবে।

৩- সাইডবার্ন/জুলফি শেপ করা-

গলার নিচে ট্রিম করার পর জুলফি শেপ করে ফেলুন। দাঁড়ি ট্রিমিং-এর সবচেয়ে জটিল অংশ এটি। এজন্যেই খেয়াল করুন-

জুলফি শেপ করার জন্য আপনাকে বাইরে থেকে, অর্থাৎ কানের নিচের অংশ থেকে ধীরে ধীরে শেপ করতে হবে।
বাইরে থেকে শেপ হবার পরে ফেস-এর ভেতরের অংশ থেকে সাবধানে জুলফি শেপ করতে হবে।
৪- চিক লাইন-

চিক লাইন, অর্থাৎ চোখের নিচের দিক থেকে গালের অংশটি ঠিকভাবে ট্রিম করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এই অংশটি প্রথমেই চোখে পরে। এক্ষেত্রে, মুস্টাশ বা গোঁফ-এর সাথে জুলফি কানেক্ট করে লাইন করাটাই আসল। খুব সাবধানে মুখের এবং দাঁড়ির শেপ-এর উপর ভিত্তি করে লাইন-এর মতো করে এই অংশটি ঠিক করে নিতে হবে। লাইনটি ঠিক হয়ে গেলেই ক্লিপার ব্যবহার করে বেড়ে ওঠা দাঁড়ি ট্রিম করে নিন।

৫- মুস্টাশ বা গোঁফ-

মুস্টাশ বা গোঁফ কিরকম রাখবেন, এটি আপনার প্রেফারেন্স। অনেকেই গোঁফের লেন্থ একটু বড় রাখতেই পছন্দ করেন। আবার অনেকেই দাঁড়ির সাথে সামঞ্জস্য রেখে একই লেন্থ-এই রাখেন। আবার অনেকেই গোঁফ বড় রেখে দুই পাশে পাকিয়ে রাখাটাই প্রেফার করেন। এই ব্যাপারটি আপনি এক্সপেরিমেন্ট করে দেখতে পারেন।

৬- লেন্থ ট্রিম-

এই অংশে আপনাকে দাঁড়ির লেন্থ ঠিক কতোটুকু রাখতে চাইছেন সেই হিসেবে সঠিক ক্লিপারটি ট্রিমারের সাথে লাগিয়ে নিতে হবে। একটু বড় দাঁড়ি রাখতে চাইলে বড় ক্লিপার এবং ছোট দাঁড়ির জন্য ছোট ক্লিপার ব্যবহার করতে হবে।

কার্টেসি: Sheba Xyz

 

আপনার পছন্দের ট্রিমার অর্ডার করতে এখানে ক্লিক করুন-

Leave a Reply

Your email address will not be published.